fbpx
skip to Main Content
শিশুর ঠান্ডা কাশি হলে কি করণীয়

শিশুর শারীরিক অবস্থা বেগতিক হওয়ার একটা বিশেষ রোগ হলো ঠান্ডা সর্দি ও কাশি। অধিকাংশ সময় ধরেই শিশুর ঠান্ডা লেগেই থাকে। কারন শিশুর শরীর হলো অতিরিক্ত সেনসিটিভ এবং পানি নিয়ে খেলা করতে অধিক পছন্দ। এই সকল বিষয়ের কারনে সকল ঋতুতেই একটু আকটু ঠান্ডা লেগেই থাকে।

তবে শিশুর ঠান্ডা কাশি হলেই তাকে ঔষধ খাওয়ানো যাবেনা। শিশুকে সব সময় চেস্টা করবেন ঘরোয়া ট্রিটমেন্ট দিতে এতে করে  শিশু শারীরিক ভাবে বেশি সুস্থ থাকবে। তাই আপনার শিশুর ঠান্ডা কাশি হলে কিভাবে ঘরোয়া ট্রিটমেন্টের মাধ্যমে সারিয়ে তুলবেনঃ

গার্গল

গরম পানিতে গার্গল করা কাশি ও গলা ব্যথা থেকে মুক্তি দেওয়ার সবচেয়ে কার্যকর উপায়! এক গ্লাস গরম পানিতে সামান্য লবণ মিশিয়ে গার্গল করা খুব উপকারি। দিনে অন্তত তিন বার গার্গল করা ভাল।

লেবু ও মধু

লেবু পানিতে এক চা চামচ মধু মিশিয়ে বাচ্চাকে খাওয়ান। মধু শ্বাসযন্ত্রের ব্যাকটিরিয়া ধ্বংস করে, বুক থেকে কফ দূর করে গলা পরিষ্কার রাখে।

হলুদ ও মধু

মধু গলা ভাল রাখতে সাহায্য করে। এক্ষেত্রে এক বছরের বেশি বয়সের বাচ্চাদেরই হলুদের সাথে মধু মিশিয়ে দিন।

আদা ও মধু

সর্দি কাশি থেকে মুক্তি পাওয়ার এক দুর্দান্ত ঘরোয়া উপায় হলো আদা। বাচ্চাকে এক টুকরা আদার সাথে মধু মিশিয়ে খাওয়াতে পারেন। বে এক বছরের কম বয়সী বাচ্চাদের মধু দেবেন না।

দুধ ও হলুদ

হলুদে অ্যান্টিব্যাকটিরিয়াল বৈশিষ্ট্য রয়েছে। বাচ্চার কাশির সারাতে হলুদ দুধ ব্যবহার করতে পারেন। এক গ্লাস গরম দুধে আধা চা চামচ হলুদ মিশিয়ে বাচ্চাকে খাওয়ান। কাশি থেকে স্বস্তি মিলবে।

গরম স্যুপ

বাচ্চার কাশি হলে গরম স্যুপ খাওয়াতে পারেন। এতে কাশি কমতে পারে এবং গলা ব্যথাও কমে যাবে।

মিশ্রি

কাশি থেকে মুক্তি পেতে বাচ্চাকে মিশ্রি দিতে পারেন। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মিশ্রি গলার আর্দ্রতা বজায় রাখে, যার ফলে গলায় জ্বালা কম হয়।

সরিষার তেল ও রসুন

সরিষার তেল গরম করে এর মধ্যে সামান্য রসুন থেঁতো করে মিশিয়ে রাখুন কিছুক্ষণ। এরপর ওই তেল দিয়ে শিশুর গলা, বুক, পিঠ, হাতের তালু ও পায়ের পাতায় এটি মালিশ করুন। ঠাণ্ডা-কাশি দ্রুত সেরে যাবে এই উপায়ে।

মেরুদন্ডে তেল মালিশ

শিশু যদি রাতে শুকনো কাসি দেয় তবে আপনি সরিষার তেল পিঠে মালিশ করে দিলেই তার কাসি কমে যাবে।

এভাবেই আপনি আপনার শিশুর ঠান্ডা কাশির সমাধান করতে পারেন।

This Post Has 58 Comments
  1. The very crux of your writing while sounding agreeable initially, did not settle perfectly with me after some time. Somewhere within the paragraphs you actually were able to make me a believer but only for a short while. I however have a problem with your jumps in assumptions and you would do nicely to fill in those breaks. If you actually can accomplish that, I would certainly end up being impressed.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!