fbpx
skip to Main Content
বাচ্চাদের সাথে সময় কাটান তাদের প্রশ্নের উত্তর দিন

আজ থেকে ত্রিশ বছর আগে এমন আর্টিকেল লিখে ওয়েবসাইটে ব্লগ তৈরি করার সুযোগ হয়তো ছিলোনা। ছিলনা আমাদের কাছে আজকের দিনের সব সুপার ফাস্ট ডিভাইস। ছিলোনা সুপার ফাস্ট ইন্টারনেট। এখন আমাদের সব অল্প সময়ে করে ফেলার সুযোগ আছে। চুটকির মধ্যেই দশ হাজার মাইল দূরে থাকা সন্তানকে স্ক্রিনে দেখে নিতে পারি। এত দ্রুত করেও কিন্তু আমাদের হাতে এখন সময় নেই এক দন্ডও। আজকে পত্রপত্রিকার নিউজে দেখতে পাই, গেইমস খেলতে না পেরে আত্মহত্যা, সামন্য একটি পোশাকের কারনে আত্মহত্যা । এছাড়া ডিপ্রেশন নামক এক বস্তু ছড়িয়ে গেছে আমাদের মাঝে হই হই করে।

যখন আপনি নিউজটি পড়েন যে, একটি পাখি পোশাকের কারনে আত্মহত্যা করেছে তখন আপনার মনে হয় এতো তুচ্ছ ব্যাপারে ছেলে মেয়ে এই পথ বেছে নেয়। আসলে যখন সন্তানদের থেকে বাবা-মায়ের দুরত্ব বেড়ে যায় কেবল তখনই এই তুচ্ছ ব্যাপারখানা তাদের কাছে আকাশ তুল্য হয়ে দাঁড়ায়।
আপনার সন্তান যখন খুব ছোট থাকবে তখন তার মনে দুনিয়ার সকল কিছুই একটি গোলক ধাঁধাঁর মত লাগে। সব কিছুই তার কাছে নতুন । তাই সে সময় কাছের মানুষ গুলোকে হাজারো রকমের প্রশ্ন করতে থাকে। এইতো আমারো দুটো ভাতিজা আছে, অফিস শেষে বাসায় ফেরার পর তার প্রশ্নত্তোর পর্ব শুরু হয়।  মাঝে মাঝে অবাক হই এই ৭/৮ বছরের বাচ্চার মাথায় এই প্রশ্ন কিভাবে আসে। এ বিষয় অবশ্যই এখনকার বাচ্চা কাচ্চারা আপনার আর আমার থেকে দু’কদম আগেই বটে। কারন সে সময় উপরে উল্লেখিত সুপার ফাস্ট প্রযুক্তি ছিলোনা।

তাই আপনার বাচ্চার সব থেকে কাছের বন্ধু আপনি হোন। এতে করে আপনার বাচ্চার মেধা বিকাশ হবে । সব বিষয় থাকবে স্বচ্ছ ধারনা। তার নিজের উপর আত্মবিশ্বাস জন্মায়।

বাচ্চাকে নিয়ে কিছু সময় বাইরে থেকে ঘুরে আসুন । বাইরে বলতে দূরে কোথাও না । বাসার নিচে রাস্তায় হোক বা মুদির দোকান থেকে কিছু কিনতে যাওয়ার সময় ই হোক , বাচ্চাকে সাথে নিয়ে যান । কিছুটা সময় তার হাত ধরে হাঁটুন , গল্প করুন বা তার সাথে ছোটখাটো একটা রেস দিতে পারেন যাতে আপনি অবশ্যই হারবেন । দেখবেন এই অল্প সময়টুকু বাচ্চার উপর কতটা ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে । তার আচরণেই আপনি অনুভব করতে পারবেন । বাচ্চাকে আপনার কাজের অংশ করে নিন । কাজের সময় বাচ্চাকে টিভি বা মোবাইল ধরিয়ে না দিয়ে তাকে সাথে নিয়েই কাজ করুন ।

এরপর ধরুন আপনি রান্না করছেন রান্নার সময় তাকে হয়ত একটা পেঁয়াজ ছিলতে দিলেন , ঘরের কাজ করার সময় তাকে কিছু এগিয়ে দিতে বললেন বা টুকটাক কাজ করতে দিলেন । যখন আপনার লক্ষীসোনা আপনার চারপাশে ঘুরঘুর করে ঘুরে বেড়াবে আপনার সাথে আধো আধো বুলিতে কথা বলবে দেখবেন তার যেমন এক দফা খেলা হয়ে যাবে আর আপনার হাতের কাজও স্বস্তিতে ফুরিয়ে যাবে । এতে বাচ্চাও অনেক উৎসাহিত হবে ।

রাতে ঘুমোতে যাওয়ার পূর্বে বাচ্চাকে বই পরে শোনান । এতে বাচ্চা যেমন শিখবে তেমনি আপনাদের বন্ডিং টাও ভালো হবে । বাচ্চার জন্য এমন বই নিন যাতে রঙ আর ছবির আধিক্য থাকবে । পড়ার সাথে সাথে বাচ্চাকে বই এর বিভিন্ন রঙ এবং ছবির সাথে পরিচয় করিয়ে দিন । সাথে সাথে কিছু প্রশ্ন করুন । এবং তার সঠিক উত্তরের তারিফ করুন ।

সকালে নাশতার সময় বা রাতে খাওয়ার টেবিলে , যখন পারবেন দিনের একটা সময় পরিবারের সবাই এক সঙ্গে সময় কাটান । খেতে খেতে সারা দিন কার কেমন কাটল তা নিয়ে গল্প করুন । কোনও গুরু গম্ভীর আলোচনা নয় , টিচার বা পড়ার গল্প নয় । ছুটির মেজাজে ওর সাথে গল্প করুন।গল্পচ্ছলে টেবিল ম্যানার্স , খাবারের স্বাদ , উপকরণ , রঙ বা রেসিপি নিয়ে আলোচনা করুন। এতে আপনার সন্তানের মেধা প্রসারিত হবে। যেকোনো যায়গায় সে সবার মাঝে মাথা উঁচু করে থাকবে কেননা সে সকল বিষয় পারদর্শি।।

এভাবেই সন্তানের পাশে থাকুন। সন্তানের সুখ দুঃখ ভাগ করে নিন। তাহলে ডিপ্রেশন নামক বস্ত আপনার সন্তানের মূল্যবান জীবনে আঘাত হানতে পারবেনা।

This Post Has 48 Comments
  1. С любовью для вас восемь свежих сериалов для истинных ценителей хорора.
    Бумажный дом 5 сезон 7 серия смотреть онлайн все сезоны, все серии.
    Смотрите по мировому рейтингу, Сериалы
    жанра “Ужасы”. Опять же наш проект выдает
    меню каналов Пятница, HD НТН, 4K Дом кино, прямой эфир 2х2, трансляция
    ТНТ.

  2. Метод семейных расстановок по Берту Хеллингеру.
    Системно-феноменологический подход Системно-семейные расстановки.

    Системно-семейные расстановки.
    Системные расстановки. Семейное консультирование и психотерапия.
    Новые семейные расстановки.

  3. Hi! This post couldn’t be written any better! Reading through this post reminds me of my previous room mate!
    He always kept chatting about this. I will forward this write-up to him.

    Fairly certain he will have a good read. Many thanks for sharing!

  4. It’s amazing to pay a visit this web site and reading the views of all friends on the topic of this post, while I am also zealous of getting knowledge.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!