fbpx
skip to Main Content
সন্তান নেয়ার সঠিক বয়স

বাঙলার প্রচলিত প্রবাদ “কুড়িতে বুড়ি” এর আসলে তেমন কোন ভিত্তি নেই। যদিও এখনো কারো কারো মুখে শোনা যায় এই কথা। দিন যাচ্ছে সব কিছুই উন্নতির দিকে এগোচ্ছে। একসময় মেয়েরা পড়াশোনা তেমন অংশ গ্রহন করতেন না। তবে আজ সকল ক্ষেত্রে মেয়েরা সমান ভাবে অংশ গ্রহন করছেন। তাই সন্তান নেয়ার ক্ষেত্রেও ক্যারিয়ারের ব্যাপারটাও ভাবতে হবে। যদিও এখন সরকারের পক্ষ থেকে মাতৃগর্ভকালীন ছুটি নির্ধারন করা হয়েছে ছয় মাস। অবশ্য মাতৃত্ব সম্পন্ন করার জন্য এটা যথেষ্ট সময় নয়। তাই ক্যারিয়ার শুরুর আগেই যদি কেউ সন্তান নিয়ে ফেলে তবে অবশ্যই তাকে অনেক বাধা বিপত্তি পেরোতে হয়। আবার যদি কেউ বেশি সময় নিয়ে ফেলেন তবে তাদের ক্ষেত্রেও ঝুকির সম্ভাবনা রয়েছে।

আসুন জেনে নেই সন্তান নেয়ার সঠিক সময় কখন আর কখন সন্তান নেয়া আপনার জন্য ঝুকি হবে।

বয়স ২৬ঃ

২৬ বছরের পর দেরি না করে সন্তান নিয়ে নেয়া উচিত। দুই সন্তান নেয়ার ক্ষেত্রে তাদের মাঝে দুই থেকে তিন বছর পার্থক্য রাখা উচিত, যা মায়ের স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য দরকার।

৩৫ পেরিয়ে গেলেঃ 

আর অনেক ক্ষেত্রে ৩৫ বছর পেরিয়ে গেলে দেখা যায় সন্তান আর হতে চায় না। গর্ভাবস্থায় ডায়াবেটিস, হাইপারটেনশন এসব নানা রোগ দেখা যায়, আর বাচ্চা অ্যাবনরমাল হওয়ার আশঙ্কাও থাকে। তাই মেয়েদের বয়স ২০ বা ২১ বছর হলে তার কিছুদিন অপেক্ষা করে সন্তান নেয়া উচিত। কিন্তু, মেয়েদের বয়স ২৮ হয়ে গেলে ক্যারিয়ারের কথা চিন্তা করে দেরি করা উচিত না।৩৫ বছরের বেশি বয়সে সন্তান জন্ম দেয়াটাই বিপজ্জনক । বেশি বয়সে সন্তান হলে মা এবং সন্তান উভয়েরই সমস্যা হতে পারে। সাধারণত ৩৫ বছরের বেশি বয়সে সন্তান জন্ম দেয়াটাই বিপজ্জনক। এতে করে শিশু নানা প্রকারের শারীরিক সমস্যা নিয়ে জন্মগ্রহণ করতে পারে। আর মায়ের ক্ষেত্রে, তার ডায়াবেটিকস হয়ে যেতে পারে। ব্লাড প্রেশার বেড়ে যেতে পারে। আবার কোনো কোনো ক্ষেত্রে সময়ের আগেও পানি ভেঙে যেতে পারে। এতে করে ব্লিডিং হওয়ার আশঙ্কা থেকে যায়।

 ৪০ বছরের বেশি বয়স :

৪০ বছরের বেশি বয়স হলে আপনার গর্ভবতী হওয়ার সম্ভাবনা থাকে মাত্র ৫ ভাগ। আর ৪০ বছরের বেশি বয়স্ক নারীদের প্রতি পাঁচজনের ভেতর মাত্র একজনের স্বাভাবিকভাবে মা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

এছাড়া ৪০-৪৪ বছরের ভেতরে নারীদের গর্ভপাতের সম্ভাবনা থাকে ৩৪ ভাগ। তবে ৪০ বছরের নিচে যারা ৬ মাস ধরে চেষ্টা করেও মা হতে পারছেন না তারা ফার্টিলিটি এক্সপার্ট দেখালে ফল পেতে পারেন।

সন্তান নেয়ার সঠিক সময় তো জেনে নিলেন। শুধু সন্তান নেয়াটাই বিষয় নয় এর পারিপার্শ্বিক আরো অনেক বিষয় আছে যেগুলো আপনাকে প্রভাবিত করবে। তাই সঠিক সময় সঠিক সিদ্ধান্ত নিন। কেননা এই সন্তানই একদিন আপনার নাম এবং মর্যাদা বাড়িয়ে তুলবে।

This Post Has 215 Comments
  1. Thanks a lot for sharing this with all of us you really know what you’re talking about! Bookmarked. Please also visit my site =). We could have a link exchange contract between us!

  2. It is truly a nice and useful piece of information. I’m satisfied that you shared this helpful information with us. Please keep us informed like this. Thank you for sharing.

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!