fbpx
skip to Main Content
সন্তান বড় হলে তার বন্ধু হন

একটা গল্প দিয়ে শুরু করি। এক বাসার ছোট ছেলের গল্প। সে তার জীবনের কথা এভাবেই বলেছিলো। হুবহু তুলে ধরছি।
“আমার বাবার ছোট সন্তান আমি। আমরা চার ভাইবোন। মায়ের অল্প বয়েসে বিবাহ হওয়ার কারনেই আমাদের ভাইবোনদের বয়সের গ্যাপটা অনেক লম্বা। আমার থেকে আমার বড় ভাইয়ের বয়েসের দুরত্ব প্রায় আঠারো বছর, আবার বড় ভাইয়ার থেকে আম্মুর বয়স মাত্র পনেরো। এমন কম্বিনেশন খুব রেয়ার। এই বিরল কম্বিনেশনের কারনে আমার ও বাবার মাঝেও অনেকটা দুরত্ব ছিল তাই বাবার থেকে একটু দুরেই থাকা হত ।

আমার স্মৃতিশক্তি বেশ ভাল মাশাল্লাহ। আমার দু’বছর বয়েসের ঘটনা আমার এখনো পরিস্কার চোখে ভাসে। কিন্তু আমার বাবা আমাকে দু’বছর বয়সের পরে কোলে নিয়েছিলেন কিনা সেটা আমার মনে পরেনা। আমি ভাবতাম আমার বাবা আমাকে মোটেও ভালবাসেন না। এবং সবসময় কড়া শাসনে রাখতেন । আমাদের বাড়ির ভাড়াটে পাশের ঘরের ছেলের সাথেও মিশতে নিষেধ করতেন খেলাধুলো তো প্রশ্নেই আসেনা। সব মিলিয়ে আমার প্রাথমিক পড়াশোনা শেষ করি বাবা মায়ের কাছেই।

আমার মা আমাকে সব সময় সব কিছুতেই সাহায্য করতেন। বাবার অগোচরে লুকিয়ে লুকিয়ে খেলনা বা আমার চাওয়ার সকল জিনিস কিনে দিতেন। তবে আম্মু মেরে তক্তা বানালেও বাবা কোন দিন আমাকে মারেননি। কিন্তু ভয় আমার মনে অনেক কঠিন আকারে বাসা বেধেছিল আর সেই ভয় থেকে মন্দ লাগা । কিন্তু একদিন আমি বুঝতে পারলাম আমার বাবা আমাকে কতটা ভালবাসেন। আমার প্রাইমারি শেষ করে বড় ভাইয়ের কাছে ঢাকাতে আসার পরিকল্পনা এবং সিদ্ধান্ত ফাইনাল হয়। আর সেটা জানার পরে আমার বাবা আমাকে প্রত্যেকদিন বাজারে যাওয়ার সময় বুঝাতেন যে, যাওয়ার দরকার নেই, এখানেই থাক। তোর যা লাগে আমি কিনে দেব । ওখানে গিয়ে যেভাবে থাকবি আমি সেভাবেই খেয়াল নিব। আমি বাবার ভালবাসা আঁচ করতে পারলেও আগে তৈরি হওয়া দূরত্ব আমার মনকে শক্ত করে দিয়েছিল । আমি বাবাকে এক  কথায় না করে দিলাম। আমি বললাম আমি যাবোই। আমি আর থাকবোনা আপনাদের সাথে।

লিখতে গিয়ে আমার চোখে আজ পানি্তে টলমল করছে। আজকের অনুভূতিটা সেদিন আমার মাঝে থাকলে হয়তোবা আমি আসতাম না বাবা-মা কে ছেড়ে। অত ছোট বেলাতেই পাড়ি জমাতাম না এই দূর শহরে। কিন্তু আমার বাবা আমাকে যে সত্যি অনেক ভালবাসতেন এটা নিয়ে কোন সন্দেহ নেই আজ। এই অনুভূতি পেতে আমার বয়সের কোটা প্রায় বিশ পেড়োতে হয়েছে। এবং এর মাঝে আমি আমার বাবার থেকে যে এত দূরে এসেছি সে বিষয় আমার মন আমাকে একটু কড়া নাড়েনি। কোন মায়াই কাজ করেনি। কিন্তু আজ আমি লিখতে গিয়ে চোখের পানি ফেলছি। ”

উপরের ঘটনাটি আপনারা পড়ে নিশ্চয়ই বুঝলেন যে বাবা-মা যদি সন্তানের মনের কাছাকাছি না থাকে তবে সেটার ফলাফল খুবই ভয়াবহ। এই ছেলেটির ক্ষেত্রে হয়তো তার ভাইয়া ছিলো, তাই তার কাছে গিয়ে আশ্রয় নিয়েছিলো। কিন্ত সবার এমন নাও থাকতে পারে।

ছেলেটি তার কথার শেষে এইভাবে ইতি টেনেছিলো,
” তবে হ্যাঁ , একদিন আমার বাবা এসে কিছু পারিবারিক সমস্যা আমার সাথে শেয়ার করে এবং আমাকে কিছু দায়িত্বও দেন। সেইদিনই কেবল আমার মনে এই অনুভূতি হয়েছিলো “সন্তান যখন কাধ বরাবর হয় তখন বন্ধু হয়ে যায়”।

ইন্টারনেটে অনেক আলোচনা পাবেন এই নিয়ে সন্তানের কাছে থাকুন। কিন্তু বাস্তব জীবন থেকে দেখুন, যদি ছেলেটির বাবা তাকে এত কড়া শাসনে না রেখে আরো ভালভাবে বোঝাতেন হয়তোবা তাদের দূরত্বটা তৈরি হতোনা।
আপনি আপনার সন্তানের মনের কাছে গিয়ে আস্তে আস্তে তাকে প্রতিটা জিনিস ভাল মনে বোঝাতে থাকুন। তার শৈশব পার হলেই আরো নিকটে গিয়ে তাকে কৈশোরের বুঝ দিন এবং তারপর তার বেস্ট ফ্রেন্ডের জায়গাটা নিয়ে নিন। তবেই আপনি হবেন সফল বাবা-মা।

আজ আলোচনা করার হাজার টপিক আছে যেগুলো করা যায়। কিন্তু এত কথা বলেও কি লাভ। আপনি শুধু তার বন্ধুর মত কাছে থাকুন, অভিভাবকের মত শাশন করুন। এবং শিখিয়ে দেন সকল সমস্যায় বাবা কিংবা মাই তোমার সব চেয়ে কাছের। এরাই তোমাকে সাহায্য করবে নিঃস্বার্থ ভাবে।

বর্তমান সময়ের ইন্টারনেটের যুগে আপনাকে অনেক চৌকশ হতে হবে। কিন্তু সবচেয়ে সহজ হবে তার মনের কাছে চলে গিয়ে তাকে সামাজিক মাধ্যম গুলোর ব্যবহার ও সুফল এবং কুফল। আর এরই মাধ্যমে দেখবেন আপনার সন্তান অজান্তেই আপনার কাছে থাকবে এবং আপনাকে তার কাছের বন্ধু ভাববে। আর এমন টা হলে কখনো দরজা আটকে ব্লেড দিয়ে হাত কাটবেনা বা গার্লফ্রেন্ড ছেড়ে গেছে বলে আটটা ঘুমের ঔষধ খেয়ে হসপিটলাইযড হবেনা। আপনার সন্তানের কাছে থাকুন তার বন্ধু হোন এবং শাসন করুন বন্ধুর ছলে। কেননা এখনকার ছেলে মেয়েরা বাবা-মায়ের থেকে বন্ধুদের প্রাধান্য বেশি দিয়ে থাকেন। তাই একটু ভিন্ন আংগিকে গড়ে তুলুন আপনার সন্তানকে।

This Post Has 136 Comments
  1. Новинки фільми, серіали, мультфільми
    2021 року, які вже вийшли Ви можете дивитися українською на нашому сайті
    Link

  2. obviously like your website however you have to take a look at the spelling on quite a few of your posts. Several of them are rife with spelling problems and I in finding it very troublesome to inform the reality on the other hand I will certainly come again again.

  3. Its like you read my mind! You seem to know a lot about this, like you wrote the book in it or something. I think that you can do with some pics to drive the message home a little bit, but other than that, this is fantastic blog. A fantastic read. I’ll definitely be back.

  4. Hi! I just wanted to ask if you ever have any problems with hackers? My last blog (wordpress) was hacked and I ended up losing a few months of hard work due to no back up. Do you have any solutions to protect against hackers?

  5. Помощь профессионального Психолога.
    Консультация у психологов Консультация у психологов.
    Психолог,Психолог онлайн. Услуги аналитического психолога,
    психотерапевта. Індивідуальні консультації.
    Індивідуальні консультації. Рейтинг психологов.

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!